শনিবার, ১৫ Jun ২০২৪, ০৩:২০ পূর্বাহ্ন

শিরোনামঃ

বিজ্ঞাপন

টাকার কাছে হেরে যাচ্ছে ভুক্তভোগিদের অভিযোগ,একের পর এক অত্যাচার ও জুলুম করে যাচ্ছেন স্থানীয় লোকদের উপর,প্রতিরোধ করতে গেলে উল্টো ভয়ভীতি দেখিয়ে যান হাজী নুরুল আলম

টাকার কাছে হেরে যাচ্ছে ভুক্তভোগিদের অভিযোগ,একের পর এক অত্যাচার ও জুলুম করে যাচ্ছেন স্থানীয় লোকদের উপর,প্রতিরোধ করতে গেলে উল্টো ভয়ভীতি দেখিয়ে যান হাজী নুরুল আলম

 

ক্রাইম রিপোর্টারঃ মোঃ জামাল উদ্দিন রনি

 

হাজী নুরুল আলম,কেরোসিন তেল বিক্রেতা হতে যিনি যাত্রাবাড়ীর ধনকুবেদের মধ্যে একজন হিসেবে খুভই পরিচিত মানুষ।অজশ্র টাকার মালিক বনে যাওয়া এই নুরুল আলম এখন মানুষকে মানুষ হিসেবে গন্য করেননা বলে দাবী করেছেন উত্তর পশ্চিম যাত্রাবাড়ীতে অবস্থিত নুরুল আলমের ক্রয়কৃত ৫টি বাড়ীর আশপাশের স্থানীয় অনেক বাড়ীর মালিকগন সহ অনেক সু-পরিচিত স্থানীয় যুবকরা।

উক্ত এলাকায় অধিকাংশ বাড়ীর মালিক গনদের দাবী যে,উল্লেখিত ব্যক্তি তার নিজ খেয়াল খুশি মতো যখন যা ইচ্ছে হতো তাই করতেন।এতে করে তার আশপাশে থাকা (অভিযোগকারীরা) স্থানীয় লোকদের অনেক সমস্যা হতো এবং যা অদ্যবদি বিদ্যমান।

মোঃ নুরুল আমিনের ৯/১, উত্তর পশ্চিম যাত্রাবাড়ী বাড়ীটির পিছনের অংশের গলির রাস্তার উপরে দেয়াল ঘেঁষে দুইটি সিসি ক্যামেরা স্থাপন করেন,যার কারনে উক্ত গলিতে বসবাসরত অধিকাংশ মহিলাদের চলাচলের সময় অনেক সময় গায়ের কাপর এদিক ওদিক হয়ে যায়,যা তিনি উক্ত সিসি ক্যামেরায় পরিলক্ষিত হয়ে থাকে।এতে করে নিজদের( উক্ত গলিতে বসবাসরত) কাছেও বিষয়টা অনেকটা আপত্তিকর।

এমনকি উল্লেখিত বাড়ীটির মেইন সড়ক সংলগ্ন দ্বিতীয় তলার উপর ও হাজী নুরুল আলম আরো দুইটি সিসি ক্যামেরা স্থাপন করেন।তার এই ক্যামেরা স্থাপনের কারন জানতে গেলে তিনি সাফ বলে দেন যে,তোদের দেখার জন্য লাগাইছি।তাছাড়া উল্লেখিত গলির উপরে তার বাড়ীটির পিছনের দেয়াল ঘেঁষে গ্যাস নির্গত হওয়ার জন্য একটি সিট জাতীয় ভারী দ্রব্য দিয়ে বুলুয়ার জাতীয় কিছু একটা স্থাপন করেন,যা অত্যান্ত বিপদজনক।কেননা উল্লেখিত সিট জাতীয় ভারী দ্রব্যটি যে কোনো সময় উল্লেখিত গলিতে চলাচলকারীদের উপর ভেঙ্গে পড়তে পারে,যা নাকি বড় ধরনের একটি দুর্ঘটনার স্বীকার হতে হবে উল্লেখিত গলির যে কোনো বাসিন্দার।তাছাড়া একেতো অন্যায়ভাবে উল্লেখিত গলিতে বসবাসকারী কোনো একটি স্থানীয় বাড়ীওয়ালাদের না জানিয়ে জোরপূর্বক স্থাপন করেছেন এবং এই স্থাপনার বস্তুটির অবস্থান গলির রাস্তাজুড়ে অবস্থিত।এই ব্যপারে উল্লেখিত গলির ও আশপাশের কিছু যুবক যেমনঃ-রবিন,নজরুল সহ আরো অনেকেই প্রতিবাদ করতে গেলে তাদের বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি প্রদর্শন সহ আরো অনেক ধরনের হুমকি প্রয়োগ করতেন।তাতে করে তার এই তথা উল্লেখিত ব্যক্তির এই হুমিকির ভয়ে কেও প্রশাসনিক সহযোগিতার জন্য ও স্থানীয় থানায় অভিযোগ করতে যেতে ও ভয় পেত।

পরবর্তীতে এই সকল বিষয়ে উক্ত এলাকার স্থানীয় বড়দের এবং পরবর্তীতে উল্লেখিত এলাকার পঞ্চায়েতের মুরুব্বিদের মৌখিকভাবে জানালে আদৌ পর্যন্ত কোনো সমাধান দিতে পারেনি তারা,বরং ব্যর্থতার গ্লানি নিয়ে বহিঃপ্রকাশ করেন।

এমতাবস্থায় তার এই সকল অত্যাচারের বিরুদ্ধে,নিত্যদিনের নিপীড়নের প্রতিবাদে আজ উক্ত গলির অধিকাংশ মানুষই বোবার মত বসবাস করে আসছে বলে এক বাক্যে সকলেই বলে উঠেন।পাশাপাশি মনের ক্ষীপ্ত অভিমানে এও প্রকাশ করেন যে,আদৌ কী এই অত্যাচারের দিন কখনো শেষ হবে না,এই স্বাধীন বাংলাদেশের প্রশাসনকি উল্লেখিত ব্যক্তির বিরুদ্ধে কোনো আইনি ব্যবস্থা গ্রহন করবেন না ?নাকি হাজী মোঃ নুরুল আলমের টাকার পাহাড়ের নিকট প্রশাসন ব্যর্থ ?

তাছাড়া কোনো এক পর্যায় উলেখিত ভুক্তভোগিরা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন সকল কর্মকর্তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে উলেখিত বিষয়টির নিরপেক্ষ তদন্ত সাপেক্ষে তাদের এই অসহায়ত্বের প্রতি স্ব-হৃদয় বিবেচনার জন্য উল্লেখিত বিষয়টির ব্যপারে একটি স্থায়ী ও সঠিক বিচার দানে সুদৃষ্টি কামনা করে উপস্থিত সকলের মতামত ব্যক্ত করেন।

আরো উল্লেখ থাকে যে,গত ২৪/০২/২০২১ইং তারিখে হাজী মোঃ নুরুল আলম ওরফে আলম হাজী’র বিভিন্ন যায়গায় নামে বেনামে বিপুল পরিমানে অবৈধ বাড়ি,ফ্ল্যাট,অর্থ সম্পদের বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক ) এ একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়,যা প্রক্রিয়াধীন অবস্থায় রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




সম্পাদক ও প্রকাশক

No description available.

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ মোঃ ওমর ফারুক চৌধুরী

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ ইঞ্জিঃ সোহরাব হোসেন শাহেদ

সহঃ ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ রিফাত আহম্মেদ

নির্বাহী সম্পাদকঃ মোল্লা মোহাম্মদ হাসান

বার্তা সম্পাদকঃ মোঃ লস্কর আলী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ মোঃ সগির আহম্মেদ

অফিসঃ৪৮/বি, পশ্চিম যাত্রাবাড়ী,ঢাকা-১২০৪।

ওয়েব সাইট-www.bortomanjonojibon.com

নিউজ মেইলঃ newsbortomanjonojibon@gmail.com

যোগাযোগ- ০২-৭৫৪২৩১২

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Bangla Webs