রবিবার, ১৬ Jun ২০২৪, ০৪:২২ অপরাহ্ন

শিরোনামঃ

বিজ্ঞাপন

যাত্রাবাড়ী আইডিয়েল স্কুল ও ওয়াসা অফিস সংলগ্ন কিছু চায়ের দোকানে ও রাস্তায় অপরিচিত ও সন্দেহজনক কিছু যুবকের প্রতিনিয়ত আনাগোনা

যাত্রাবাড়ী আইডিয়েল স্কুল ও ওয়াসা অফিস সংলগ্ন কিছু চায়ের দোকানে ও রাস্তায় অপরিচিত ও সন্দেহজনক কিছু যুবকের প্রতিনিয়ত আনাগোনা

 

ক্রাইম রিপোর্টার-মোঃ ওমর ফারুক

যাত্রাবাড়ী আইডিয়েল স্কুলের পশ্চিমে অবস্থিত মসজিদের পশ্চিম রাস্তার মোড়ে একটি চায়ের দোকান এবং যাত্রাবাড়ী স্পোর্টিং ক্লাবের দেয়াল ঘেঁষে আরো একটি চায়ের দোকানে প্রতিদিন কিছু যুবক সন্দেহজনক ভাবে প্রতিদিন ঘোরাফেরা করতে দেখা যায়।কখনো চায়ের দোকানে চায়ের আড্ডায়,আবার কখনো যাত্রাবাড়ী অবস্থিত ওয়াসা অফিসের সামনে সম্মুখে রাস্তায় চলাচল করতে দেখা যায়।উক্ত এলাকার স্থানীয় কিছু বাড়িওয়ালাদের এই সকল যুবকদের চিনেন কিনা বা তাদের কারো বাসার ভাড়টিয়া কিনা জিজ্ঞাসা করলে তারা এক কথায় বলে দেয়,তাদের তারা চিনেন না।

এক পর্যায় উক্ত যুবকদের সাথে সরাসরি কথা বলে তাদের পরিচয় জানতে চাইলে তাদের পক্ষ হতে কেও কেও বলে উঠে যে,তারা ওয়াসা অফিসের স্টাফ,আবার কেও বলে ওয়াসা অফিসে বিভিন্ন ধরনের কাজ করে।আবার কেও বা উত্তর দেয় তারা এমনি এখানে আসেন।

অথচ উক্ত ওয়াসা অফিসে যোগাযোগ করে জানা যায় যে,তারা কেহই উক্ত অফিসের স্টাফ না।এমনকি উক্ত অফিসের হাজিরা খাতায় তাদের কোনো স্বাক্ষর নেই,যদিও তারা উক্ত অফিসের স্টাফ বলে দাবি করে আসতে থাকে।

এই ব্যপারে অনুসন্ধান করে দেখা যায় যে,এই সকল যুবকরা সকলেই জামালপুর জেলার অধিবাসী এবং উক্ত অফিসে কর্মরত সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা  এবং জামালপুর জেলা বিএনপি’র নেতা মোঃ হাফিজুল তালুকদার পরিচিত নাতি বা ভাগিনা কিংবা গ্রামের ছেলে কিংবা এলাকার ছোটো ভাই হিসেবে ক্ষ্যত।ওয়াসা অফিসের গ্রাহকদের সাথে তাদের সকলের সক্ষতা আছে,এমনকি উক্ত ওয়াসা অফিসের নানান ধরনের গ্রাহক সমস্যা এই সকল যুবকরা সমাধান দিয়ে আসতে থাকে।যেমন-নতুন কোনো পানির লাইন সংযোগ কিংবা বিল নিয়ে যে কোনো ধরনের জটিলতা হলেও তারা সমাধান দেয়ার লক্ষ্যে উক্ত অফিসে কর্মরত কিছু লোকের দ্বারা সমাধান করে দেন।

পরক্ষনে তাদেরকে এই সকল কাজ তারা উক্ত অফিসের কার দারা সমাধান দিয়ে থাকেন,এই ব্যপারে জিজ্ঞাসা করলে,তাতক্ষনিক তারা সেই বিষয়গুলি তথা তাদের কর্মকাণ্ড গুলি অস্বীকার করেন।

এমনকি তাদের প্রত্যেকের চলাচলের গতি সন্দেহজনক হলেও তাদের এই ধরনের উম্মুক্ত চলাচল করার পেছনে কোনো অসৎ উদ্দেশ্য আছে কিনা তা বুঝা প্রায় কঠিন।যদিও এলাকাবাসী এই সকল লোকদের ব্যপারে তেমন কোনো সঠিক তথ্য জানেন না,এমনকি এদের কেহই যাত্রাবাড়ীর বাসিন্দা বা ভাড়াটিয়া নন,সেমতে বিষয়টি যাত্রাবাড়ী থানার প্রশাসনের নিকট জানালে তারা বিষয়টির তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহন করবেন বলে আশাব্যক্ত করেন।

তবে কৌশলগত ভাবে তাদের অনেকের নাম সংগ্রহ করা হয়েছে।নামগুলি যথাক্রমে-একরামুল হক রুবেল,মহসিন,জিয়া,জহির,জসিম,ফয়সাল ও মিনহাজ।আরো অনেকেই আছে যাদের নাম সংগ্রহ করা যায়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




সম্পাদক ও প্রকাশক

No description available.

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ মোঃ ওমর ফারুক চৌধুরী

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ ইঞ্জিঃ সোহরাব হোসেন শাহেদ

সহঃ ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ রিফাত আহম্মেদ

নির্বাহী সম্পাদকঃ মোল্লা মোহাম্মদ হাসান

বার্তা সম্পাদকঃ মোঃ লস্কর আলী

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ মোঃ সগির আহম্মেদ

অফিসঃ৪৮/বি, পশ্চিম যাত্রাবাড়ী,ঢাকা-১২০৪।

ওয়েব সাইট-www.bortomanjonojibon.com

নিউজ মেইলঃ newsbortomanjonojibon@gmail.com

যোগাযোগ- ০২-৭৫৪২৩১২

এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Bangla Webs